#FightFraudWithFlipkart – OTP জালিয়াতি থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে এটি পড়ুন

Read this article in English | தமிழ் | मराठी | ಕನ್ನಡ | हिन्दी | ગુજરાતી

যারা নিয়মিত অনলাইন শপিং করেন, তাঁদের জন্য OTP হল সম্পূর্ণ প্রক্রিয়ার একটি অংশবিশেষ, কিন্তু এই গোপন কোডগুলি আপনার মূল্যবান তথ্যকে রক্ষা করে! OTP কেয়ার এবং এই ধরনের সংবেদনশীল তথ্য শেয়ার করার সম্পর্কে নিজেদেরকে সচেতন করার মাধ্যমে, আমরা অনলাইনে চুরি, জালিয়াতি এবং সংবেদনশীল তথ্য হারানো থেকে নিজেদের রক্ষা করতে পারি। কেন OTP শেয়ার করা ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে এবং প্রয়োজন মত আপনি কীভাবে সেটি নিরাপদে শেয়ার করতে পারেন তা জানার জন্য এটি পড়ুন।

OTP

খন এমন একটি সময় যখন আপনার সমস্ত সংবেদনশীল তথ্য ডিজীটাইজ করা হয় এবং আপনার প্রায় সমস্ত ডিজিটাল ট্রান্সাকসনের জন্য একটি OTP
প্রয়োজন হয়, সেই কারণে এই গোপন কোডগুলি সম্পর্কে অত্যন্ত সচেতন হওয়া আবশ্যক। এটি এখন বিশেষভাবে প্রাসঙ্গিক, কারণ
তথ্যের মাধ্যমে জানা গেছে যে, OTP জালিয়াতি 2017 থেকে অত্যন্ত হারে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং ২০২০ সালে ১০৯১টি এই ধরণের ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছে।

আপনার ফ্লিপকার্ট অ্যাকাউন্টে লগ ইন করার জন্য আপনি যে OTP পান তা পেমেন্টের জন্য , আপনার মোবাইল নম্বর আপডেট করার জন্য , আপনার ইমেল তথ্য পরিবর্তন করা বা আপনার পাসওয়ার্ড রিসেট করার জন্য হোক, সমস্ত OTP অত্যন্ত সংবেদনশীল অনুমোদন কোড। শুধুমাত্র একটি সেশন বা লেনদেনের জন্য বৈধ, এগুলি আপনার ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত রাখতে ব্যবহৃত টু ফ্যাক্টর পরিচয় স্থাপন পদ্ধতি বা 2এফএ এর একটি প্রধান অংশ।

কেন আপনার OTP ব্যক্তিগত রাখা উচিত?

আপনার ফ্লিপকার্ট অ্যাকাউন্টে আপনার নাম, মোবাইল নম্বর, জন্ম তারিখ, ইমেল আইডি, ঠিকানা এবং এমনকি পেমেন্ট সংক্রান্ত তথ্যের মতো বিশদ বিবরণ রয়েছে। এই তথ্যে অননুমোদিত অ্যাক্সেস ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে, যার মধ্যে অন্যতম কিছু ঝুঁকি হল, পরিচয় চুরি, আর্থিক ক্ষতি, ডিজিটাল স্ক্যামের ঝুঁকি বা হয়রানি।

একইভাবে, আর্থিক লেনদেনের সময় আপনার OTP এক্সপোজ করলে আনুষঙ্গিক ঘটনা ঘটতে পারে। এই কোড অ্যাক্সেসের মাধ্যমে, একজন প্রতারক সমস্ত তথ্য অ্যাক্সেস করতে পারে। ফ্লিপকার্ট এর কোনো প্রতিনিধি কখনই কলের মাধ্যমে বা টেক্সটের মাধ্যমে পেমেন্ট OTP চাইবেন না। প্রতারকরা একটি ক্রয় বা লেনদেন সম্পূর্ণ করার প্রস্তাবিত পদ্ধতির নামে এটি করার চেষ্টা করতে পারে । এই ধরনের কৌশল থেকে সতর্ক থাকুন, কারণ আপনার OTP শেয়ার করলে তারা আপনার অ্যাকাউন্টের অ্যাক্সেস পেতে পারে, যা অসৎ উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হতে পারে।

ফ্লিপকার্ট আপনাকে কোন ধরনের OTP পাঠাতে পারে

যেহেতু OTP শুধুমাত্র একটি লেনদেন বা লগইন সেশনের জন্য বৈধ, তাই ফ্লিপকার্ট আপনার পক্ষ থেকে শুরু করা পদক্ষেপের উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন OTP পাঠায়। ফ্লিপকার্টের তরফ থেকে পাঠানো আসল ম্যাসেজগুলিকে চিহ্নিত করতে আপনার যাতে সুবিধা হয় তাই এখানে OTP ম্যাসেজগুলির কয়েকটি উদাহরণ দেওয়া হয়েছে৷

1. আপনার ফ্লিপকার্ট অ্যাকাউন্টে লগ ইন করার জন্য আপনি যে OTP ম্যাসেজটি পাবেন৷
OTP

2. ফ্লিপকার্ট অ্যাকাউন্টে আপনার ফোন নম্বর আপডেট করার জন্য আপনি যে OTP ম্যাসেজটি পাবেন৷

OTP

3. একটি ফ্লিপকার্ট অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড রিসেট করার জন্য আপনি যে OTP ম্যাসেজটি পাবেন:

OTP

আপনি OTP সহ আপনার রেজিস্টার্ড ইমেল আইডিতে একটি ইমেলও পেতে পারেন।

OTP

4: একটি ফ্লিপকার্ট অ্যাকাউন্টের জন্য আপনার ইমেল অ্যাড্রেসটি আপডেট করতে OTP ম্যাসেজসহ একটি ইমেল:
OTP

5:ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড বা নেটব্যাঙ্কিং ব্যবহার করে কোনো প্রোডাক্ট অর্ডার করার জন্য আপনি যে OTP পাবেন:

OTP

কখন এবং কার সাথে আপনি একটি OTP শেয়ার করতে পারেন?

যদিও বেশিরভাগ OTP ব্যাক্তিগতভাবে শুধুমাত্র আপনার, তবে কখনও কখনও, আপনি অনুমোদিত কর্মীদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। এখানে কয়েকটি উদাহরণ দেওয়া হল:

  • দামী প্রোডাক্ট ডেলিভারি করার সময়আপনি একটি ম্যাসেজ পাবেন এবং ডেলিভারি সম্পূর্ণ করতে ফ্লিপকার্ট উইশমাস্টারের সাথে OTP শেয়ার করতে হবে

OTP

  • রিটার্ন রিকোয়েস্টের জন্য একটি COD অর্ডারের ক্ষেত্রে.আপনি একটি OTP পাবেন, যা কলের মাধ্যমে শেয়ার করতে হবে.

নিশ্চিত করুন যে দামী প্রোডাক্ট ডেলিভারি করার সময়, আপনি একজন অনুমোদিত ফ্লিপকার্ট উইশমাস্টারের সাথেই OTP শেয়ার করছেন। তাদের অবশ্যই আপনার OTP নিশ্চিত করতে হবে এবং আপনাকে প্রোডাক্টটি হস্তান্তর করতে হবে। ফেরত দেওয়ার ক্ষেত্রে, ফেরতযোগ্য প্রোডাক্টের বিবরণ নিশ্চিত করে তবেই প্রাপ্ত OTP শেয়ার করুন। অন্য কোনো ক্ষেত্রে আপনার OTP শেয়ার করবেন না। ফ্লিপকার্ট আপনার লগইন OTP, পাসওয়ার্ড রিসেট OTP বা আর্থিক লেনদেন সম্পর্কিত OTP চাইতে কল বা টেক্সটের মাধ্যমে গ্রাহকদের সাথে যোগাযোগ করে না।

সবচেয়ে ভালো হাইজিন প্র্যাক্টিসগুলি কী কী?

আপনার সংবেদনশীল তথ্য এবং আপনার গোপন OTP কোডগুলিকে সুরক্ষিত করার ক্ষেত্রে সঠিক অভ্যাস গড়ে তুলতে, এখানে কয়েকটি টিপস দেওয়া হল৷

    • কোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠান বা ই-কমার্স পরিষেবা প্রদানকারী আপনাকে আপনার OTP পড়তে বলবে না। যদি তারা বলে, তাদের নির্দেশ অনুসরণ করবেন না এবং কলটি কেটে দেবেন
    • আপনি যদি ফোন কলের মাধ্যমে কোনও প্ল্যাটফর্মে কোনও প্রোডাক্ট বা পরিষেবা বুক করেন তবে আপনাকে আপনার কীপ্যাড ব্যবহার করে OTP কোড লিখতে বলা হবে। কলে চলাকালীন OTP লিখবেন না বা পড়বেন না.
    • অপরিচিত নম্বর থেকে এসএমএসের মাধ্যমে পাঠানো লিঙ্ক এড়িয়ে চলুন। এগুলি হল আপনার ডিভাইস এবং ব্যক্তিগত তথ্য অ্যাক্সেস করার প্রচেষ্টা৷
    • OTP দেওয়া টেক্সট বা ম্যাসেজ কাউকে ফরওয়ার্ড করবেন না .
  • একটি OTP দেওয়ার আগে যে পরিমাণ টাকা ডেবিট করা হবে তার পরিমাণ বারবার যাচাই করুন এবং দুবার চেক করুন। OTP ম্যাসেজে মার্চেন্টের নাম এবং অন্য কোনো তথ্য চেক করতে ভুলবেন না। কোনো অসঙ্গতি থাকলে, লেনদেন ক্যান্সেল করুন।.

এই টিপসগুলি অনুসরণ করে, আপনি শুধুমাত্র ফ্লিপকার্টে নয়, অন্য যেকোনও ডিজিটাল লেনদেনের সময়ও নিরাপদে কেনাকাটা করতে পারেন। আপনার OTP যত্ন সহকারে ব্যবহার করুন এবং কোনও ঝামেলা বা উদ্বেগ ছাড়াই ফ্লিপকার্ট অ্যাপ বা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইনে কেনাকাটা উপভোগ করুন!
আমাদের ব্লগ পড়ুন নিরাপদে অনলাইন কেনাকাটা করার বিষয়ে আরো টিপ্স এবং তথ্য জানার জন্য।

Enjoy shopping on Flipkart

0 Shares
Share
Tweet
Share
WhatsApp
Telegram